Saturday, July 16th, 2016

গণভোট দিন, শতকরা ৯৯ ভাগ মানুষ রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র্র বাতিলের পক্ষে ভোট দিবে

আজ ১৬ জুলাই সকালে মুক্তিভবনে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র্র কেন সুন্দরবনবিনাশী, ১২ জুলাই সহ এ সম্পর্কে সম্পাদিত বিভিন্ন যুক্তি কেন জাতীয় স্বার্থবিরোধী সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রমাণ ও যুক্তি পাওয়ার পয়েন্টের পেজেন্টেশনে তুলে ধরা হয়। প্রকৌশলী কল্লোল মোস্তফা উপস্থাপিত এই তথ্য যুক্তিতে দেখানো হয় যে সরকারের বিভিন্ন প্রচারণায় দাবি ভ্রান্ত এবং প্রতারণামূলক। প্রধানমন্ত্রী কথিত-অক্সফোর্ড কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র্র দূষণের কারণেই বন্ধ হয়ে গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব আনু মুহাম্মদ বলেন, রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র যে সুন্দরবনের বিনাশ ঘটাবে তা এতই নিশ্চিত যে বাংলাদেশের সকল পর্যায়ের মানুষ এর বিরোধী। সরকার যদি এ বিষয়ে গণভোট দেয় এবং মানুষকে ভোট দিতে দেয় তাহলে শতকরা ৯৯ ভাগ মানুষ এর বিরুদ্ধে ভোট দিবে।

আনু মুহাম্মদ আরো বলেন, বিশ্বের এবং বাংলাদেশের একজনও বিশেষজ্ঞ পাওয়া যাবে না যিনি মনে করেন  রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রে সুন্দরবনের ক্ষতি হবে না। শুধুমাত্র কোম্পানির স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরাই এই দাবি করেন। অবিলম্বে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সকল চুক্তি ছুড়ে ফেলে সুন্দরবন রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলনে আগামী ১৮ জুলাই ঢাকাসহ দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ, ১৯ থেকে ২৬ জুলাই ঢাকা ও সুন্দরবন সংলগ্ন জেলাগুলোতে পদযাত্রা সমাবেশ সাংস্কৃতিক প্রতিবাদ এবং ২৮ জুলাই প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন হায়দার আকবর খান রনো, সাইফুল হক, মোশাররফ হোসেন নান্নু, বজলুর রশীদ ফিরোজ, অ্যাড. আব্দুস সালাম, জাহাঙ্গীর আলম ফজলু, অধ্যাপক মোশাহীদা সুলতানা, রজত হুদা, শহীদুল ইসলাম সবুজ, মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন, সুবল সরকার, নাসির উদ্দিন নাসু, শামসুল আলম, ফখরুদ্দিন কবির আতিক প্রমুখ।