Monday, September 16th, 2019

“গ্যাস রপ্তানির সুযোগ রেখে সমুদ্রের ‘পিএসসি- ২০১৯’ দেশের স্বার্থবিরোধী”

তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সভায় নেতৃবৃন্দ বিদেশি কোম্পানিকে রপ্তানির সুযোগ রেখে সমুদ্রের ‘পিএসসি-২০১৯’কে দেশের স্বার্থবিরোধী আখ্যায়িত করেছেন। নেতৃবৃন্দ সরকারকে গ্যাস রপ্তানির উদ্যোগ থেকে সরে এসে দেশের গ্যাস সম্পদের উপর শতভাগ মালিকানা নিশ্চিত করে, গ্যাস উত্তোলন ও দেশের স্বার্থে গ্যাস ব্যবহারের দাবি জানান।

আজ ১৬ সেপ্টেম্বর বিকালে ২ কমরেড মণি সিংহ সড়কস্থ মুক্তিভবনে (৫ম তলা) জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক এম.এম. আকাশ, মোহাম্মদ শাহ আলম, রুহিন হোসেন প্রিন্স, জোনায়েদ সাকী, মোশাররফ হোসেন নান্নু, প্রকৌশলী কল্লোল মোস্তফা, খালেকুজ্জামান লিপন, আকবর খান, জহিরুল ইসলাম, জুলফিকার আলী, রজত হুদা প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, যতটুকু জানা গেছে সমুদ্রের ‘পিএসসি-২০১৯’তে বিদেশি কোম্পানিকে গ্যাস রপ্তানির সুযোগ দেওয়া হয়েছে, বিদেশি কোম্পানির কাছ থেকে বাংলাদেশকে যে গ্যাস কিনতে হবে তা আগের প্রস্তাব থেকে বাড়িয়ে ৭.২৫ মার্কিন ডলার করা হয়েছে, ট্যাক্স মওকুফ করা হয়েছে, যাতে কার্যত এই গ্যাসের দাম ১০ ডলার পড়বে।
নেতৃবৃন্দ বলেন ‘জনমত উপেক্ষা করে দেশে গ্যাসের সংকট দেখিয়ে উচ্চ মূল্যে গ্যাস (এলএনজি) আমদানি করা হচ্ছে, আবার দেশের গ্যাস রপ্তানির চুক্তি করা হচ্ছে’- এটা হলো, দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে জনগণের পকেট কেটে কমিশন ভোগী, দেশি-বিদেশি লুটেরা ও বহুজাতিক কোম্পানির স্বার্থ রক্ষা।

নেতৃবৃন্দ সমুদ্রে মডেল পিএসসি-২০১৯ বাতিল, শতভাগ মালিকানা নিশ্চিত করে স্থল ও সমুদ্র বক্ষের গ্যাস উত্তোলনে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ এবং রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বাড়ানোর দাবি জানান। নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার গ্যাস রপ্তানির সর্বনাশা পথ থেকে সরে না এলে আন্দোলনের মাধ্যমে অতীতের মত এবারও জাতীয় স্বার্থ রক্ষা করা হবে। এজন্য দেশবাসীকে প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।

২১ সেপ্টেম্বর ‘পিএসসি-২০১৯’ নিয়ে গোলটেবিল বৈঠক
সমুদ্রের মডেল পিএসসি-২০১৯ নিয়ে জাতীয় কমিটির উদ্যোগে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর, শনিবার সকাল ১১টায় ২ কমরেড মণি সিংহ সড়কস্থ মুক্তিভবনের প্রগতি সম্মেলন কক্ষে গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষজ্ঞ, জাতীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ ও রাজনীতিবিদরা বক্তব্য রাখবেন।