Saturday, August 26th, 2017

অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও হয়রানি বন্ধসহ এশিয়া এনার্জি (জিসিএম) বহিষ্কার, ফুলবাড়ী চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন করার দাবি করে ফুলবাড়ী দিবস পালন

আজ ২৬ আগস্ট ফুলবাড়ী গণঅভূত্থান ও প্রতিরোধের ১১ বছর পূর্তিতে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির উদ্যোগে ঢাকা-ফুলবাড়ীসহ সারাদেশে ফুলবাড়ী দিবস পালিত হয়।

আজ সকাল ১০টায় ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতীয় কমিটিসহ বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ, গণসংহতি আন্দোলন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাসদ (মার্কসবাদী) জাতীয় গণফ্রন্ট, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, ছাত্র ফেডারেশন, পরিবেশবাদী সংগঠন (বাপা), গ্রীণ ভয়েজসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন ফুলবাড়ী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন। শ্রদ্ধাঞ্জলি শেষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বক্তব্য রাখেন জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ ও কেন্দ্রীয় নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ-এর কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, বাসদ (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা আকম জহিরুল ইসলাম, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা তাসলিমা আক্তার, জাতীয় গণফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতা রজত হুদা প্রমুখ।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচি হিসাবে সকাল ৯টায় ফুলবাড়ী শহীদ স্মৃতিস্তম্ভের শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদসহ জাতীয় নেতৃবৃন্দ। এছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন ফুলবাড়ী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা অর্পণ করেন।

সকাল ১০টায় ফুলবাড়ী নিমতলী মোড়ে ফুলবাড়ী উপজেলা জাতীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক হামিদুল হকের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, কেন্দ্রীয় নেতা টিপু বিশ্বাস, মোশাররফ হোসেন নান্নু, শাহিন রহমান, আরিফুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম পল্টু, সৈয়দ মোসাদ্দেক হোসেন লাবু, আদিবাসী নেতা রবীন্দ্রনাথ সরেন প্রমুখ।

সমাবেশে আহ্বায়ক শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ ও সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও হয়রানি বন্ধসহ এশিয়া এনার্জি (জিসিএম) বহিষ্কার, ফুলবাড়ী চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন করার সরকারের প্রতি দাবি জানান।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ফুলবাড়ীসহ ৬ থানার কয়লা দেখিয়ে বেআইনীভাবে লন্ডনের শেয়ারমার্কেটে তোলা বিপুল অর্থ জরিমানা হিসেবে আদায় করে এশিয়া এনার্জি (জিসিএম) কে চিরতরে বিহষ্কার করতে হবে। দালালদের বিচারসহ রক্তে লেখা ফুলবাড়ী চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবি জানান। ফুলবাড়ী, বিরামপুর, পার্বতীপুর, নবাবগঞ্জ, বড়–পুকুরিয়াসহ উত্তরবঙ্গ ধ্বংস করে উন্মুক্ত খনির চক্রান্ত বন্ধ করার দাবি জানান।

কর্মসূচি

  • ফুলবাড়ী আন্দোলনের নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আগামী ১১ অক্টোবর ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় ঘেরাও এবং প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান।
  • ১৪ নভেম্বর দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় অভিমুখে মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান।