Saturday, May 13th, 2017

বিশ্বঐতিহ্য তালিকা থেকে সুন্দরবন বাদ হবার আগেই রামপাল প্রকল্পসহ সুন্দরবনবিনাশী সব অপতৎপরতা বন্ধের দাবিতে ১৩ মে দেশব্যাপী প্রতিবাদ দিবস পালিত

বিশ্বঐতিহ্য তালিকা থেকে সুন্দরবন বাদ হবার আগেই রামপাল প্রকল্পসহ সুন্দরবনবিনাশী সব অপতৎপরতা বন্ধের দাবিতে আজ ১৩ মে দেশব্যাপী প্রতিবাদ দিবস পালিত। ঢাকায় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ শেষে মিছিল অনুষ্ঠিত।

রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ সুন্দরবনবিনাশী সকল চুক্তির কারণে বিশ্বঐতিহ্য তালিকা থেকে সুন্দরবন বাদ হবার মুখে। তার আগেই রামপাল প্রকল্পসহ সুন্দরবনবিনাশী সব অপতৎপরতা বন্ধের দাবিতে আজ ১৩ মে ’১৭ বিকেল সাড়ে ৪টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নগর সমন্বয়ক জুলফিকার আলীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় কমিটি সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, ঢাকা বিশ্বিবিদ্যালয়ের শিক্ষক মোশাহিদা সুলতানা, আকবর খান ও খান আসাদুজ্জামান মাসুম। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় কমিটির কেন্দ্রীয় নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স, বজলুর রশীদ ফিরোজ, জোনায়েদ সাকি, মানস নন্দী, প্রকৌশলী কল্লোল মোস্তফা, মনির উদ্দীন পাপ্পু, অনুপ কুন্ডু প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, দেশ বিদেশের বিশেষজ্ঞরা যেখানে বাববার পরিস্কার করে বলছেন, রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র সুন্দরবনকে বিনাশ করবে, দেশকে বিপন্ন করবে। তারপরও সরকার জেদ করে কতিপয় গোষ্ঠীর লোভ ও মুনাফার স্বার্থে এই প্রকল্প নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী তার ওপর আস্থা রাখতে বলেন কিন্তু তিনি বিশেজ্ঞদের মত, জনমত অস্বীকার করেন। যিনি কাঠকয়লা ও খনিজকয়লার পার্থক্য জানেন না, যিনি বন ও গাছের পার্থক্য জানেন না তার ওপর কীভাবে আস্থা রাখা যায়।

সমাবেশ থেকে ইউনেস্কোর সামনের অধিবেশনে সুন্দরবনকে বিশ্ব ঐতিহ্য তালিকা থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত যাতে না নিতে পারে সেজন্য অবিলম্বে রামপাল প্রকল্পসহ সুন্দরবনবিনাশী সব অপতৎপরতা বন্ধের দাবি জানানো হয়।