Archive for the ‘Power’ Category

Sunday, September 30th, 2012

আমরা কেন বিদ্যুতের বেশি দাম দেব?

সব যুক্তি তথ্য জনমত অগ্রাহ্য করে সরকার বারবার বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েই যাচ্ছে। এই দাম বাড়ানোর পক্ষে আছে বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ আর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত দখলে নিতে তৎপর দেশি-বিদেশি গোষ্ঠী। আর বিপক্ষে সর্বস্তরের মানুষ। কার ভোটে সরকার ক্ষমতায় যায়, আর কাদের কথায় চলে? জনগণের কাছ থেকে ভোট নেওয়ার সময় এই Read More…

Friday, September 21st, 2012

বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি কতটা যৌক্তিক?

গত ২০ সেপ্টেম্বর ২০১২ বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) এক বিজ্ঞপ্তি’র মাধ্যমে বিদ্যুতের দাম পাইকারি পর্যায়ে গড়ে ১৭ শতাংশ এবং খুচরা/গ্রাহক পর্যায়ে গড়ে ১৫ শতাংশ  বৃদ্ধি করা হয়েছে যা ঘোষণার আগে থেকে অর্থাৎ ১ সেপ্টম্বর থেকে কার্যকর হবে। এর ফলে গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম Read More…

Friday, September 21st, 2012

৩০ সেপ্টেম্বর রবিবার জ্বালানি মন্ত্রণালয় ঘেরাও

জনগণের জীবন দুর্বিসহ করে অর্থনীতিকে বিপর্যস্ত করে শিল্পায়ন বাধাগ্রস্ত করে কিছু গোষ্ঠির স্বার্থে সরকার বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করেছে ৫ দফা। আবারো বিদ্যুতের দামবৃদ্ধির পাঁয়তারা চলছে। এনার্জি রেগুলেটরী কমিশন নামে ব্যয়বহুল এক তামাশার দোকান খুলে জনগণের ঘাড়ে বারবার এই বোঝা চাপানো হচ্ছে। অবিলম্বে সর্বশেষ দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব প্রত্যাহার করতে হবে Read More…

Thursday, July 28th, 2011

বিদ্যুতের মূলবৃদ্ধি প্রসঙ্গে অধ্যাপক শামসুল আলমের সাক্ষাতকার

[অধ্যাপক এম শামসুল আলম। প্রাক্তন অধ্যাপক, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাতকে পর্যবেক্ষণ করছেন দীর্ঘদিন যাবৎ। জ্বালানি বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছেন নানা ধরনের গবেষণা ও কর্মতৎপরতার মধ্য দিয়ে। জ্বালানি খাতে যুদ্ধাপরাধী রয়েছে এমন মন্তব্য করে খ্যাতি অর্জন করেছেন তিনি। সাম্প্রতিক সময়ের বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির সরকারি ঘোষণা নিয়ে Read More…

Thursday, March 4th, 2010

ভারত-বাংলাদেশ বিদ্যুৎ চুক্তি

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতের চুক্তির বিষয়ে বিস্তারিত বিশ্লেষণে যাওয়ার আগে বাংলাদেশের বর্তমান কয়লা, গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংকট সম্পর্কে ছোট একটি বর্ণনা দিলেই ভারতের ২৫০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র নির্মাণ, উৎপাদন কেন্দ্র সংরক্ষণ চুক্তির নেপথ্যের ধরনটা সহজেই ধরা পড়বে।
বাংলাদেশ দীর্ঘদিন থেকে এক অনিরাময়যোগ্য বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংকটের Read More…

Tuesday, April 21st, 2009

বিদ্যুৎ সংকট, জ্বালানী মন্ত্রণালয়ের দুষ্টগ্রহ এবং বহুজাতিক কোম্পানির আগ্রাসন

১৯৯৪ সালে Broken Hill Properties বা BHP নামে একটি অস্ট্রেলিয়ান কোম্পানিকে কয়লা অনুসন্ধানের কাজে নিয়োগ করা হয়। কয়লা খনি করতে গেলে কী বিরাট পরিমাণ পানি পাম্প করতে হয় তা একটি ভারতীয় উপদেষ্টা ফার্ম এর নিকট জানার পর তাঁরা সিদ্ধান্ত নেন যে, ১৫০ মিটারের বেশী গভীরতায় উন্মুক্ত খনন পদ্ধতি অত্যন্ত Read More…

Saturday, March 21st, 2009

মন্ত্রণালয়ের অপতৎপরতা: প্রেক্ষিত বিদ্যুৎ ও জ্বালানী সংকট

বড়পুকুরিয়াতে উত্তোলিত কয়লা দিয়ে ২৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়। গত বছর সেখানে ৩ লাখ টন কয়লা উদ্বৃত্ত ছিল। এই কয়লা রপ্তানির জন্য বড়পুকুরিয়া কর্তৃপক্ষ সরকারের কাছে অনুমতি চেয়েছেন। সরকার অনুমতি দেয়নি। অর্থাৎ বড়পুকুরিয়ার কয়লা কাজে লাগানোর মতো চাহিদাও আমাদের নেই। সেখানে ১২৫ মেগাওয়াটের আরো একটি প্ল্যান্ট বসানোর কথা। সেটি Read More…

Page 10 of 11« First...7891011